হোয়াটসঅ্যাপ টিপস : যা সবার জানা উচিত

মেসেজিং অ্যাপস হিসেবে হোয়াটসঅ্যাপ জনপ্রিয়তার শীর্ষে রয়েছে। এর সিম্পল ডিজাইন এবং সেবা প্রদানের সুবিধার দিক থেকে অনান্য অ্যাপসগুলো থেকে আলাদা। বড় কথা হলো এটি ব্যবহার করতে কোন টাকা খরচ হয় না এবং এটি বিজ্ঞাপন মুক্ত একটি অ্যাপস। তাই হোয়াটসঅ্যাপ সকলের পছন্দের মেসেজিং অ্যাপ। হোয়াটসঅ্যাপের রয়েছে অসাধারণ সব ফিচার যেগুলো জানলে আপনার হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার আরো মজাদার ও আকর্ষণীয় হয়ে উঠবে। তাই আজকের এই আর্টিকেলে আপনাদের সাথে আলোচনা করব হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারের অসাধারণ দশটি টিপস ও ট্রিকস নিয়ে। আশাকরি পুরো আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়বেন।

ফন্ট পরিবর্তন

হোয়াটসঅ্যাপে মেসেজ লেখার সময় চাইলে টেক্সটের ফন্ট পরিবর্তন করতে পারবেন।

  • এই কাজটি করার জন্য হোয়াটসঅ্যাপের মেসেজ বক্সে গিয়ে আপনার মেসেজটি টাইপ করুন।
  • এরপর লেখার যে অংশটুকুর ফন্ট পরিবর্তন করতে চান সেটা সিলেক্ট করুন।
  • সিলেক্ট করার পর দেখতে পারবেন cut copy paste bold italic এবং তিনটি বিন্দু দেওয়া আছে।
  • এখন যদি লেখাটি বোল্ড করতে চান তাহলে bold লেখায় ক্লিক করুন। ইটালিক করতে চাইলে italic লেখায় ক্লিক করুন। স্ট্রাইকথ্রো করতে চাইলে তিনটি বিন্দুতে ক্লিক করে strikethrough লেখায় ক্লিক করুন। মনো স্পেস করতে চাইলে Monospace লেখায় ক্লিক করুন।

অথবা

মেসেজ বক্সে এভাবে টাইপ করুন।

*বোল্ড* বোল্ড

_ইতালিক_ ইতালিক

~স্ট্রাইকথ্রো~ স্ট্রাইকথ্রো

```মনোস্পেস``` মনোস্পেস

হোয়াটসঅ্যাপ ওয়েব

আপনি চাইলে আপনার কম্পিউটারে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করতে পারবেন।

  • এজন্য কম্পিউটার থেকে web.whatsapp.com এ যাবেন।
  • সেখানে একটি QR code পাবেন।
  • আপনার মোবাইল এর হোয়াটসঅ্যাপ থেকে উপরের তিনটি বিন্দুতে গেলে Linked Device নামে একটি অপশন পাবেন।
  • সেখানে ট্যাপ করলে একটি ক্যামেরা অপেন হবে সেটা দিয়ে কম্পিউটারে থাকা QR code টি স্ক্যান করে নিলেই কম্পিউটারে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করতে পারবেন।

ডকুমেন্ট ফাইল শেয়ার

আপনি চাইলে হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে যেকোনো ধরনের ফাইল পাঠাতে পারবেন। যা অনান্য মেসেজিং অ্যাপসগুলো দিয়ে পাঠানো যায় না।

  • আপনি কাউকে কোন ফাইল পাঠাতে চাইলে তার ইনবক্স অপেন করুন।
  • মেসেজ বক্স থেকে 🖇️ লিংক আইকন এ ক্লিক করুন।
  • ডানপাশের উপরের কোনায় Document নামে একটি অপশন আছে,
  • সেখানে ক্লিক করলে আপনার ডকুমেন্ট ফাইলে প্রবেশ করতে পারবেন।
  • সেখানে থেকে প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট সিলেক্ট করলে send অপশন দেখতে পারবেন।

এভাবে বন্ধুদের সাথে কোন ডকুমেন্ট বা ফাইল শেয়ার করতে পারবেন।

ফিঙ্গারপ্রিন্ট লক

আপনার হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্টের গোপনীয়তা বজায় রাখার জন্য ফিঙ্গারপ্রিন্ট লক করে রাখতে পারবেন। ফিঙ্গারপ্রিন্ট লক করে রাখলে আপনি ছাড়া অন্য কেউ আপনার হোয়াটসঅ্যাপে ঢুকতে পারবে না।

  • এই সেটিংসটি চালু করার জন্য আপনার হোয়াটসঅ্যাপ থেকে উপরে থাকা তিনটি বিন্দুতে যাবেন।
  • এরপর নিচে থাকা Settings এ যাবেন।
  • Settings থেকে Account এ যাবেন।
  • Account থেকে Privacy তে যাবেন।
  • Privacy তে গেলে নিচে দেখতে পাবেন Fingerprint Lock নামে একটি অপশন আছে।
  • Fingerprint Lock অপশনে গিয়ে Unlock with fingerprint লেখার পাশে একটি বোতাম দেখতে পারবেন, সেটি চালু করে দিয়ে আপনার ফিঙ্গারপ্রিন্ট দিতে হবে।

এরপর আপনার হোয়াটসঅ্যাপে ফিঙ্গারপ্রিন্ট লক হয়ে যাবে।

নাম্বার পরিবর্তন

আপনি যদি আপনার হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্টের মোবাইল নাম্বার পরিবর্তন করতে চান, তাহলে সেটাও করতে পারবেন। মোবাইল নাম্বার পরিবর্তন করলেও আপনার হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট পূর্বের মতোই থাকবে। নাম্বার পরিবর্তন করতে চাইলে

  • Settings থেকে Account এ যাবেন।
  • Account থেকে Change Number এ যাবেন।
  • Change Number এ ট্যাপ করলে কিছু নিয়মাবলী দেখতে পারবেন।
  • এরপর Next এ ট্যাপ করে প্রথমে বর্তমান নাম্বার দিবেন নিচে নতুন নাম্বার দিয়ে Next এ ট্যাপ করবেন।
  • এরপর নতুন নাম্বারে একটি ভেরিফিকেশন কোড আসবে সেটা দিয়ে Ok তে দিলেই নাম্বার পরিবর্তন হয়ে যাবে।

টু স্টেপ ভেরিফিকেশন

আপনার হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্টের নিরাপত্তার জন্য টু স্টেপ ভেরিফিকেশন চালু করে রাখতে পারেন। এটা চালু করে রাখার সুবিধা হলো, কেউ যদি আপনার হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট চালু করতে চায় তাহলে একটি পিন নম্বর প্রয়োজন হবে এবং হোয়াটসঅ্যাপে ঢুকার জন্য পিন নম্বর লাগবে।

  • এটি চালু করার জন্য তিনটি বিন্দু থেকে Settings এ যাবেন।
  • Settings থেকে Account এ যাবেন।
  • Account থেকে Two-step verification এ গিয়ে ছয় সংখ্যার একটি কোড দিবেন।
  • এরপর আপনার ইমেইল অ্যাড্রেস দিয়ে টু স্টেপ ভেরিফিকেশন করতে পারবেন।

ডার্ক মোড

আপনি চাইলে আপনার হোয়াটসঅ্যাপ ডার্ক মোডে ব্যবহার করতে পারবেন।

  • হোয়াটসঅ্যাপে ডার্ক মোড করার জন্য Settings থেকে Chats এ যাবেন।
  • Chats থেকে Theme যাবেন।
  • Theme এ গিয়ে Dark সিলেক্ট করে Ok করে দিলেই ডার্ক মোড চালু হয়ে যাবে।

চ্যাট ব্যাকাপ

আপনি যদি আপনার মোবাইল থেকে হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট ডিলিট করেন অথবা হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাপসটি আন‌ইনস্টল করেন। এরপর যদি পুনরায় আবার হোয়াটসঅ্যাপ চালু করেন তাহলে কিন্তু পূর্বের মেসেজগুলো আর ফিরে পাবেন না। অর্থাৎ আপনার হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট নতুন ভাবে চালু হবে। কিন্তু যদি চ্যাট ব্যাকাপ করেন অথবা চ্যাট ব্যাকাপ চালু রাখেন তাহলে মোবাইল থেকে হোয়াটসঅ্যাপ আন‌ইনস্টল করলেও পরে যখন আবার নতুন করে হোয়াটসঅ্যাপে যুক্ত হবেন তখন পূর্বের চ্যাট কথোপকথনগুলো ফিরে পাবেন।

  • এই কাজটি করার জন্য হোয়াটসঅ্যাপের Settings থেকে Chats এ যাবেন।
  • Chats থেকে Chat backup এ গেলে Backup করার অপশন পাবেন।
  • এভাবে ব্যাকাপ করলে আপনার হোয়াটসঅ্যাপের ডাটাগুলো আপনার মোবাইল থাকা জিমেইল এর গুগল ড্রাইভে ব্যাকাপ হবে। আপনি যদি Backup to google drive অপশনে গিয়ে Daily সিলেক্ট করে দেন তাহলে প্রতিদিনের চ্যাট ব্যাকাপ হবে।

এভাবে ব্যাকাপ করলে যদি আপনার হোয়াটসঅ্যাপ আন‌ইনস্টল‌ও করে দেন তবুও পরে যখন হোয়াটসঅ্যাপ চালু করবেন তখন পূর্বের মেসেজগুলো ফিরে পাবেন।

চ্যাট এক্সপোর্ট

হোয়াটসঅ্যাপে চ্যাটিং এর সমস্ত ডাটা একপ্রোর্ট করা যায়। আপনি যদি আপনার হোয়াটসঅ্যাপের চ্যাটিং বা কথোপকথনগুলো এক্সপোর্ট করতে চান তাহলে

  • Settings থেকে Chats এ যাবেন।
  • Chats থেকে Chats history তে যাবেন।
  • Chats history থেকে Export chat যাবেন।
  • Export chat এ গেলে ডাউনলোড করতে পারবেন।
  • আপনি যদি মিডিয়া সহ ডাউনলোড করতে চান তাহলে Include media তে যাবেন। মিডিয়া ছাড়া ডাউনলোড করতে চাইলে without media তে ট্যাপ করবেন।
  • এরপর গুগল ড্রাইভ সিলেক্ট করে save এ ক্লিক করলে আপনার চ্যাটিং গুলো txt ফাইল আকারে এক্সপোর্ট হবে।

ভাষা পরিবর্তন

হোয়াটসঅ্যাপে ডিফল্ট ভাবে ইংরেজি ভাষা দেওয়া থাকে। আপনি চাইলে বাংলা ভাষায় হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করতে পারবেন। ইংরেজি ভাষা থেকে বাংলা ভাষায় পরিবর্তন করতে চাইলে

  • Settings থেকে Chats এ যাবেন।
  • Chats থেকে App Language যাবেন।
  • এরপর বাংলা সিলেক্ট করে দিলে আপনার অ্যাপের ভাষা বাংলা হয়ে যাবে

মেসেঞ্জারের ১৫ টি টিপস এবং ট্রিকস

আমাদের শেষ কথা

হোয়াটসঅ্যাপ আমাদের নিত্য প্রয়োজনীয় একটি অ্যাপস। আমরা প্রায় সবাই হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করি, তাই এর ব্যবহার সম্পর্কে আমাদের জানা উচিত। হোয়াটসঅ্যাপের আরো অনেক ধরনের সেটিংস ও ফিচার আছে, কিন্তু আমি এখানে শুধু প্রয়োজনীয় সেটিংসগুলো নিয়েই আলোচনা করলাম।

হোয়াটসঅ্যাপ টিপস



Post a Comment