গ্রাফিক্স ডিজাইন কি? গ্রাফিক্স ডিজাইন কিভাবে শিখবেন?

গ্রাফিক্স ডিজাইন কি? What is Graphics Design

আমরা অনেকেই আঁকিবুকি করতে ভালোবাসি। আঁকিবুকি করার ডিজিটাল রূপকেই আপনি গ্রাফিক্স ডিজাইন বলতে পারেন। তবে গ্রাফিক্স ডিজাইন একটু বড় টপিক। কারন এর মধ্যে প্রচুর সাব টপিক আছে যেমন: লোগো তৈরি, পোস্টার ডিজাইন, বুক কভার, ফটো ইডিটিং, ব্যানার ডিজাইন ইত্যাদি। এখন আপনি গ্রাফিক্স ডিজাইন করেও অনলাইনে আয় করতে পারবেন। হ্যাঁ আপনি ঠিকই শুনেছেন, গ্রাফিক্স ডিজাইন করেও অনলাইনে আয় করা যায়। আজ আমি আপনাদের সাথে আলোচনা করবো কিভাবে গ্রাফিক্স ডিজাইন করে অনলাইনে আয় করবেন?

গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখতে কি কি প্রয়োজন?


কম্পিউটার/ল্যাপটপ

গ্রাফিক্স ডিজাইন শুরু করার জন্য প্রথমে আপনার একটি ভালো ডিভাইস থাকতে হবে। সবথেকে ভালো হয় যদি আপনার ভালো ডেস্কটপ থাকে। অনেকে ল্যাপটপ কেনার সাজেস্ট করে কিন্তু ল্যাপটপের চেয়ে আপনি ডেস্কটপে ভালো পারফরমেন্স পাবেন। যদি আপনি খুব স্থান পরিবর্তন করেন সেক্ষেত্রে একটি ভালো মানের ল্যাপটপ কিনতে পারেন।

কমিউনিকেশন

কাজ পাওয়ার জন্য আপনাকে কমিউনিকেশনে দক্ষ হতে হবে, আপনি যদি মানুষের সাথে ভালো ভাবে কমিউনিকেশন করতে পারেন তাহলে আপনার কাজ পাওয়া অনেক সহজ হবে। এজন্য স্যোশাল মিডিয়াগুলোতে আপনার অ্যাক্টিভিটি থাকতে হবে। আপনাকে গ্রাফিক্স ডিজাইন রিলেটেড ব্লগ, ফোরাম, গ্রুপ, পেজ, অ্যাকাউন্টগুলোতে সংযুক্ত হতে হবে এবং সেগুলোতে আপনার রিয়েকশন এবং কমেন্ট করতে হবে। আর এভাবেই আপনি কমিউনিকেশনে দক্ষ হতে পারবেন।

ইংরেজি

এখন ইন্টারন্যাশনাল মার্কেটপ্লেসগুলোতে সবসময় ইংরেজি ভাষা ব্যবহৃত হয় এবং আপনি যেসব ক্লায়েন্ট পাবেন তারাও ইংরেজিতে কথা বলবে। কারণ যারা আপনাকে কাজের জন্য হায়ার করবে তারা বেশিরভাগই বিদেশি। এক্ষেত্রে আপনাকে ইংরেজি অবশ্যই ভালো ভাবে আয়ত্ত করতে হবে। যেন আপনি তাদের কথা বুঝতে পারেন, এজন্য আপনাকে ইংরেজিতে চ্যাটিং করার দক্ষতা অর্জন করতে হবে।

টুলস

গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখতে হলে আপনার বেশ কিছু টুলস কিংবা সফটওয়্যার লাগবে। আপনাকে সেগুলোর ব্যবহার সম্পর্কে ভালো ভাবে জানতে হবে। গ্রাফিক্স ডিজাইন শেখার জন্য জনপ্রিয় টুলসগুলো হলো।
  • Adobe Photoshop
  • Adobe Illustrator
  • Piktochart
  • Adobe XD
  • Adobe InDesign
  • CorelDRAW
  • Gravit Designer
  • GIMP
  • Pixlr
  • Inkscape

গ্রাফিক্স ডিজাইন কোথায় শিখবেন?

গ্রাফিক্স ডিজাইন শেখার বিভিন্ন মাধ্যম আছে, কিছু কিছু মাধ্যম আছে যেগুলোতে আপনি ফ্রীতে শিখতে পারবেন, আবার কিছু মাধ্যম আছে যেগুলোতে আপনাকে টাকা খরচ করতে হবে। এক্ষেত্রে আমার পরামর্শ হলো টাকা দিয়ে শেখা ভালো, কারণ এতে অনেক ধরনের সাপোর্ট পাওয়া যায়। নিচে গ্রাফিক্স ডিজাইন শেখার কয়েকটি মাধ্যম নিয়ে আলোচনা করা হলো :

ইউটিউব

বিশ্বের সবচেয়ে বড় ভিডিও শেয়ারিং প্লাটফর্ম হলো ইউটিউব। এখানে আপনি বিভিন্ন ধরনের বিভিন্ন ভিডিও পাবেন, তাই অনান্য সকল ভিডিওর মতো আপনি চাইলে ইউটিউব দেখেও গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখতে পারবেন। তবে সবাই তো আর ঠিকমতো বুঝাতে পারেনা। আপনাকে ভালো মেন্টর, ভালো চ্যানেল খুঁজে নিতে হবে। তাহলেই আপনি ইউটিউব থেকে গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখতে পারবেন।

ই-লার্নিং ওয়েবসাইট

বিভিন্ন ধরনের ই-লার্নিং ওয়েবসাইট থেকে আপনি গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখতে পারেন, এজন্য সেসব ওয়েবসাইটে আপনাকে একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করে নিতে হবে। এরপর আপনাকে তাদের ভিডিও কোর্স কিনে নিতে হবে, অনেক ওয়েবসাইটে আবার ফ্রী কোর্স ও থাকে, আমি মনে করি ফ্রী কোর্স করার চেয়ে টাকা দিয়ে কোর্স কেনাই ভালো। অনেক ওয়েবসাইটেই আবার কোর্স শেষে সার্টিফিকেট প্রদান করে, যা আপনার কাজ পেতে সহায়তা করবে।

আইটি ইনস্টিটিউট

অনলাইনের কাজ শেখার জন্য অনেক আইটি ইনস্টিটিউট আছে, আপনি সেসবে ভর্তি হয়ে তাদের কোর্স করে গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখতে পারবেন। এক্ষেত্রে সুবিধা হলো আপনাকে তারা হাতে কলমে কাজ শেখাবে। আপনি কোন বিষয় না বুঝলে, সেটা প্রশ্ন করে জেনে নিতে পারবেন।

গ্রাফিক্স ডিজাইনের চাহিদা কেমন?

বর্তমানে জনপ্রিয় কিছু ফ্রিল্যান্সিং জবের মধ্যে গ্রাফিক্স ডিজাইন অন্যতম। ফ্রিল্যান্সিং সেক্টরে গ্রাফিক্স ডিজাইনারদের জন্য প্রচুর কাজ আছে। বর্তমানে গ্রাফিক্স ডিজাইনারদের কাজের মুল্যও অনেক বেশি। এখন গ্রাফিক্স ডিজাইনারদের চাহিদা এতো বেশি কেনো? আপনি যদি ইন্টারনেট ঘাটাঘাটি করেন তাহলে বিভিন্ন ধরনের বিজ্ঞাপন দেখতে পারবেন। সেই বিজ্ঞাপনে যেসব গ্রাফিক্স, ফটো, ব্যানার ইত্যাদি থাকে সেগুলো সাধারণত একজন দক্ষ গ্রাফিক্স ডিজাইনারকে দিয়ে করানো হয় এবং এর জন্য তারা প্রচুর টাকা খরচ পর্যন্ত করে। অতএব বুঝতেই পারছেন একজন দক্ষ গ্রাফিক্স ডিজাইনারের মুল্য অনেক বেশি।


গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখে অনলাইনে আয় করুন

গ্রাফিক্স ডিজাইন করে অনলাইনে আয় করার প্রধান মাধ্যম হলো ফ্রিল্যান্সিং। তাছাড়া আরোও বিভিন্ন উপায়ে গ্রাফিক্স ডিজাইন করে আয় করা যায়। নিচে সেগুলো নিয়ে আলোচনা করা হলো।


ফ্রিল্যান্সিং

গ্রাফিক্স ডিজাইন করে আয় করার সবথেকে জনপ্রিয় এবং প্রধাণ মাধ্যম হলো ফ্রিল্যান্সিং। বর্তমানে অনেকের বিভিন্ন কাজ যেমন: পোস্টার ডিজাইন, ব্যানার ডিজাইন, থাম্বনেইল ডিজাইন ইত্যাদির জন্য একজন ভালো গ্রাফিক্স ডিজাইনার দরকার হয়। তাই তারা সাধারণত বিভিন্ন ধরনের মার্কেটপ্লেসে এমন গ্রাফিক্স ডিজাইনার খুঁজে বেড়ায়। আপনি যদি ভালো গ্রাফিক্স ডিজাইন করতে পারেন এবং ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস গুলোতে আপনার ভালো রিভিউ থাকে তাহলে আপনাকে হায়ার করার সম্ভাবনা অনেক বেশি থাকবে। কাজ হয়ে গেলে ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসটির মাধ্যমেই আপনি টাকা পেয়ে যাবেন। নিচে কয়েকটি জনপ্রিয় মার্কেটপ্লেসের নাম দেওয়া হলো, যেগুলো থেকে গ্রাফিক্স ডিজাইন করে আয় করতে পারবেন।


মার্কেটপ্লেস

বর্তমানে গ্রাফিক্স এলিমেন্ট কিংবা গ্রাফিক্স ডিজাইন বিক্রি করার অনেক মার্কেটপ্লেস গড়ে উঠেছে। এসব মার্কেটপ্লেসে আপনি আপনার প্রজেক্ট ফাইল বিক্রি করে আয় করতে পারবেন। এখন আপনি প্রশ্ন করতে পারেন যে প্রজেক্ট ফাইল কি? যেমন আমরা canva ইডিট করার সময় বিভিন্ন টেমপ্লেটের সাহায্য নিই। আসলে এই টেমপ্লেটটি একজন তৈরি করে রেখেছিলো এবং আপনি সেটি নিজের মতো ইডিট করে ব্যবহার করেছেন। অর্থাৎ এটি একটি প্রজেক্ট ফাইল। এখন বিভিন্ন গ্রাফিক্স ডিজাইন করার অ্যাপ থেকে এরকম প্রজেক্ট ফাইল তৈরি করা যায়। এগুলো পুনরায় ইডিট করার যোগ্য। আপনি এসব প্রজেক্ট ফাইল তৈরি করে অনলাইনে সেল করে আয় করতে পারেন। বর্তমানে এরকম অনেক মার্কেটপ্লেস আছে। যেমন
এসব ওয়েবসাইটে আপনার তৈরি ফটো বিক্রি করে আয় করতে পারবেন।


কোর্স বিক্রি

আপনি যদি একটি ভালো গ্রাফিক্স ডিজাইনার হয়ে থাকেন এবং গ্রাফিক্স ডিজাইন সম্পর্কে আপনার প্রচুর জ্ঞান থাকে তাহলে আপনি কোর্স তৈরি করে অনলাইনে আয় করতে পারেন। বর্তমানে অনেকে গ্রাফিক্স ডিজাইনার হতে চায় এবং তারা এসব কোর্স বরাবরই কিনে থাকে। অর্থাৎ আপনি যদি ভালো গাইডলাইন দিতে পারেন তাহলে অনেকে আপনার কোর্স কিনবে এবং আপনি সেটা থেকে আয় করতে পারবেন। আপনি আপনার কোর্স বিক্রি করে বিভিন্ন ধরনের কোর্স ই-লার্নিং ওয়েবসাইটে সেল করতে পারেন। তাছাড়া নিজস্ব কোনো উপায়ে কোর্স গুলো সেল করতে পারেন। যেহেতু গ্রাফিক্স ডিজাইন অনেক জনপ্রিয় এবং এই বিষয়ে অনেক নতুন কোর্স আছে তাই আপনাকে অনেক ভালো এবং নতুন বিষয় নিয়ে আলোচনা করে কোর্স বিক্রি করতে হবে এবং আরেকটি বিষয় সবচেয়ে জরুরী তা হলো কোর্সের মার্কেটিং। নতুন কোর্স তৈরি করলেই কেউ টাকা দিয়ে কিনতে যাবে না। আপনার কোর্সের মধ্যে নতুন এবং শিক্ষণীয় কিছু থাকলেই মানুষ কিনবে। আপনার কোর্সে যে নতুন কিছু আছে তা মার্কেটিং করে বোঝাতে হবে। তাহলেই সবাই আপনার কোর্স কিনবে এবং আপনি আয় করতে পারবেন।

আরো পড়ুন

আমাদের শেষ কথা

বর্তমানে অনেকে তরুণ তরুণীরা অনলাইনে বিভিন্ন ধরনের কাজ করে আয় করছে। এখন আপনিও যদি তাদের মতো অনলাইনে আয় করতে চান তাহলে গ্রাফিক্স ডিজাইন হবে আপনার জন্য সবথেকে ভালো একটি মাধ্যম। আপনি যদি বড় বড় ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস গুলো ঘাটাঘাটি করেন তাহলে গ্রাফিক্স ডিজাইনের চাহিদা সহজেই বুঝতে পারবেন। তবে গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখে তার মাধ্যমে আয় করতে হলে আপনার অনেক ইচ্ছাশক্তি এবং ধৈর্য্যের প্রয়োজন। আপনার যদি প্রবল ইচ্ছাশক্তি এবং ধৈর্য্য থাকে তাহলে শুধু গ্রাফিক্স ডিজাইন না অন্যান্য সকল ফ্রিল্যান্সিং সেক্টরে সফল হতে পারবেন। গ্রাফিক্স ডিজাইন নিয়ে আজকের আলোচনা এই পর্যন্ত‌ই, এ সম্পর্কে যদি কোনো প্রশ্ন থাকলে অবশ্যই কমেন্ট করবেন। আমরা আপনাকে সাহায্য করার যথাসাধ্য চেষ্টা করবো।
গ্রাফিক্স ডিজাইন কি


Post a Comment